Home National সাক্ষরতার উর্দ্ধগতিতে বাংলাদেশ

সাক্ষরতার উর্দ্ধগতিতে বাংলাদেশ

5
0

বাংলাদেশে ক্রমেই সাক্ষরতার হার বৃদ্ধি পাচ্ছে। চলতি বছরে দেশে সাক্ষরতার হার দাঁড়িয়েছে ৭৪ দশমিক ৭০ শতাংশ। যা আগের বছরের তুলনায় শূন্য দশমিক ৮০ শতাংশ বেড়েছে। গতবছর দেশে সাক্ষরতার হার ছিল ৭৩ দমমিক ৯০ শতাংশ।

আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস-২০২০ উদযাপন উপলক্ষে রবিবার (৬ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন এসব তথ্য জানান।

মো. জাকির হোসেন বলেন, আগামী ৮ সেপ্টেম্বর সারাদেশে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস পালন করা হবে। ইউনেস্কোর উদ্যোগে ১৯৯১ সালের ৮ সেপ্টেম্বর প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস পালন করা হয়। স্বাধীন বাংলাদেশে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালে প্রথমবারের মতো এ দিবস উপযাপন করেন। এর ধারাবাহিকতায় সরকার প্রতি বছর আন্তর্জাতিক দিবস পালন করে আসছে।

এবারের প্রতিপাদ্য ‘কোভিড-১৯ সংকট : সাক্ষরতা শিক্ষায় পরিবর্তনশীল শিখন-শেখানো কৌশল এবং শিক্ষাবিদদের ভূমিকা’। তবে বর্তমান করোনা পরিস্থিতির কারণে এ দিবসের সকল আয়োজন স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঘরোয়াভাবে করা হবে বলেও জানান তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর আওতায় নানা কর্মসূচির মাধ্যমে ১৯৯৯ সাল থেকে ২০০১ পর্যন্ত প্রায় ১ কোটি ৮০ লক্ষ মানুষকে সাক্ষরতার আওতায় আনা হয়েছে। বর্তমানে বেশ কয়েকটি প্রকল্পের মাধ্যমে মানুষকে সাক্ষরতার আওতায় আনা হচ্ছে। বর্তমানে বাংলাদেশে সাক্ষরতার হার ৭৪ দশমিক ৭ শতাংশ। ২০০৫ সালে বিএনপি-জামায়াত সারকারের সময় এ সংখ্যা ৫৩ দশমিক ৫ শতাংশ ছিল।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকার এসডিজি এবং জাতীয় অঙ্গীকারের ৭ম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা (২০১৬-২০২০) প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করে চলেছে। টেকসই উন্নয়ন অভীষ্টের চতুর্থ লক্ষ্যে সাক্ষরতা বিস্তার, দক্ষতা উন্নয়ন, প্রশিক্ষণ এবং জীবনব্যাপী শিক্ষার সুযােগ সৃষ্টির জন্য ৭ম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় উপানুষ্ঠানিক শিক্ষার সুযোগ সৃষ্টিতে ব্যাপক কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব আকরাম আল হোসেন, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর মহাপরিচালক তপন কুমার ঘোষ ছাড়াও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here