Home More সর্বজনীন রেশনিং ব্যবস্থা চালুর দাবি

সর্বজনীন রেশনিং ব্যবস্থা চালুর দাবি

3
0

কৃষক-শ্রমিক-মেহনতী মানুষের চাওয়া হিসেবে সর্বজনীন রেশনিং ব্যবস্থা চালুসহ ৫ দফা দাবি জানিয়েছে গণতান্ত্রিক বাম ঐক্য।
শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত এক গণজমায়েত থেকে এ সব দাবি জানানো হয়।

তাদের দাবি গুলো হচ্ছে— সর্বজনীন রেশনিং ব্যবস্থা চালু করা’ কর্মচ্যুত শ্রমিকদের জন্য বিশেষ আর্থিক প্রণোদনার ব্যবস্থা করা, গ্রামে গ্রামে সমবায় কৃষি খামার গড়ে তোলা, গ্রামীণ স্তরে আধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থা গড়ে তোলা এবং পাট উৎপাদন ও পাট পণ্যের প্রসারে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া।

গণজমায়েত থেকে বক্তারা বলেন, গত মার্চ মাস থেকে করোনা সংকটে দেশের কৃষক-শ্রমিক ও মেহনতী মানুষ বহুমুখী অর্থনৈতিক সংকটে জর্জরিত। উৎপাদন ব্যবস্থা ভেঙে পড়ায় সংগঠিত ও অসংগঠিত খাতে লক্ষ লক্ষ শিল্প ও দোকান শ্রমিক কর্মচ্যুত। একই ভাবে হাজার হাজার প্রবাসী শ্রমিক দেশে ফেরত এসেছে। ব্যাপক চাহিদার ঘাটতি, ভয়াবহ বন্যা ও যোগাযোগ ব্যবস্থা অচল থাকায় কৃষক সমাজ ফসলের ন্যায্য মূল্য থেকে বঞ্চিত। নগর ও গ্রামীণ অর্থনীতির মন্দায় দিন আনে দিন খায় মানুষগুলো ন্যূনতম উপার্জন থেকে বঞ্চিত। গত কিছু দিন ধরে নিত্যপণ্যের (মোটা চাল, পেঁয়াজ, ভোজ্য তেল ও শাক-সবজি) বাজারে পাগলা ঘোড়া দৌড়াচ্ছে। সাধারণ খেটেখাওয়া মানুষগুলোর পরিবার পরিজন নিয়ে নাভিশ্বাস উঠেছে। মোটের উপরে করোনা সংকটে সরকারের ব্যর্থতায় সাধারণ মানুষ এখন শুধুমাত্র উপরওয়ালার কাছে ভরসা করে সর্বোচ্চ স্বাস্থ্য ঝুঁকি নিয়ে দিন কাটাচ্ছে।

গণজমায়েত সমাজতান্ত্রিক মজদুর পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সামছুল আলম, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্কসবাদী)’র সাধারণ সম্পাদক কমরেড ডা. এম. এ. সামাদ, প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দল’র ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হারুন খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here